পরীক্ষা নিয়ে মজাদার কিছু কবিতা

আপডেট: ২৬ জানুয়ারী ২০১৯, ১২:৫৪

রেজাল্ট পেয়ে খুশি খোকা আম্মুর কাছে গেল,

আম্মু তখন জোর গলাতে—‘কী বা রেজাল্ট হলো?’

‘জিপিএ ৫ পেয়েছি মা, সমাজে প্লাস নাই তো,

খাতা দেখায় কড়াকড়ি মিস হয়েছে তাই তো।’

‘সব বিষয়ে প্রাইভেট তোমায় দিয়েছিলাম বাসাতে,

তবু তুমি ছাড়িলে প্লাস বলত কোন আশাতে।’

‘সমাজ প্রাইভেট বাসায় আমি কই কখনো চাইনি তো,

প্রাইভেট কোচিং স্কুল নিয়ে সমাজ পড়তে পাইনি তো।

একটা কোচিং চারটা প্রাইভেট সময় কাটে স্কুলে,

বাসায় পড়ার সময় আমি পেলাম বলো কোন কূলে।’

‘পায়চারীতে নেই কোন লাভ ফাঁকি দিলে পড়াতে,

এখন তুমি পিছিয়ে গেলে তোমার জীবন গড়াতে।

খেলার মাঠে বারণ ছিল ছুটির বিকেল বেলায়,

লেখাপড়া বাদ দিয়ে তাও মন দিয়েছ খেলায়।’

‘ক্লাসে আমি সবার চেয়ে পেলাম নম্বর ভালো,

তবুও তুমি এমন করে কেন কথা বলো?’

‘পাশের বাসার সবার চেয়ে তোমার রেজাল্ট কম যে

ক্যামনে আমি মুখ দেখাবো বলত একটু সমঝে!’

‘পাশের বাসার ওই মেয়েটাও ফেল করেছে সুমনা,

ওদের সাথে এখনও তুমি করো আমার তুলনা?’

 

--------পরীক্ষা---------

পরীক্ষাটা সামনে এলে
মাথায় পড়ে বাজ, 
যেটা ধরি সেটাই দেখি 
মেলাই বাকি আজ।
সকাল-বিকাল ভাবনা এখন
কেমন করে পাশ, 
সারা বছর দিয়েছি ফাঁকি
তাই তো সর্বনাশ।
কোনো মতে যদি এবার
উপরে উঠে যাই,
এমন পড়া পড়ব তখন
তুলনা যার নাই।

 

----------মাথা নষ্ট----------

আমাকে আমার মত পড়তে দাও
আমি পড়াকে নিজের মত কমিয়ে নিয়েছি ,
যেটা পড়িনি পড়িনি সেটা না পড়াই থাক
সব পড়তে কষ্ট ভীষণ ।
বইয়েতে আছে জটিল চ্যাপটার যতো
তারা হচ্ছে জটিলতর নিজের মতো ,
কখনও সময় পেলে একটু ভেব
পড়াশুনা করে কী হয় ?!
কোচিং এর ভীরে আমি চাইনা যেতে
বই খাতা ছড়িয়ে থাকুক টেবিলটাতে

 

------- পরীক্ষা শেষ-------

পরীক্ষা শেষ আমরা এখন

মুক্ত স্বাধীন পাখি

পাতাল ছুঁয়ে এবার দেব

আকাশটাকে ঝাঁকি।

 

মনের চাপা ইচ্ছেগুলো

মেলবে এবার ডানা

খেলব ঘুরব উড়ব অবাধ

নেই কোনো আর মানা।

 

পরীক্ষারই জন্য ছিলাম

গুটিয়ে এত দিন

পরীক্ষাটা পাথর যেন

ওজন সীমাহীন।

 

পরীক্ষার ওই সময় ছিল

কঠিন ছকে বাঁধা

কেবল পড়া, আর সবই বাদ

বন্ধ হাসা-কাঁদা।

 

পরীক্ষা শেষ আমরা এখন

হালকা মেঘের ভেলা

হাওয়ায় ওড়া তুলোর মতো

কাটিয়ে দেব বেলা।